নেতা (1/3)

– ভাইয়েরা ও বন্ধুরা, আমি আপনার সমস্ত বক্তৃতা শুনেছি, তাই এখন আমি আপনাদের অনুরোধ করছি আমার কথা শোনার জন্য। যতক্ষণ আমরা এই অনুর্বর অঞ্চলে রয়েছি আমাদের সমস্ত আলোচনা ও কথোপকথনের কোনও মূল্য নেই। এই বালুকাময় পাথুরে মাটিতে এখনও পর্যন্ত কিছুই বাড়তে পারেনি, এই খরার কথা ছেড়েই দিন, আমরা এর আগে এই রকম খরা আর কখনও দেখিনি। আর কতদিন আমরা এভাবে একত্রিত হয়ে বৃথা বাক্য ব্যয় করব? গবাদি পশু না খেতে পেয়ে মরে যাচ্ছে, এবং খুব শীঘ্রই আমরা এবং আমাদের বাচ্চারাও অনাহার মারা পরব। আমাদের অন্য কোনো ভালো ও যুক্তিসম্মত সমাধান খুঁজে বের করতে হবে। আমার মনে হয় আমাদের এই  অনুর্বর জায়গা ছেড়ে ভাল এবং ঊর্বর কোনো জায়গার সন্ধান করা উচিত কারণ এইভাবে আর বাঁচা যাবে না।

একটি সভায় ক্লান্ত কণ্ঠে কোনো অনুর্বর প্রদেশের বাসিন্দা কখনও এমনটি বলেছিল। আমার মনে হয় কখন এবং কোথায় সে এমন বলেছিল তা আমার ও তোমার জানার প্রয়োজন নেই। আমার ওপর বিশ্বাস রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে অনেক আগে কোনো জায়গায় এমনটি ঘটেছিল এবং এটাই যথেষ্ট। সত্যি কথা বলতে, এক সময় আমি মনে করতাম এই পুরো গল্পটি আমি কোনোভাবে রচনা করেছি কিন্তু ধীরে ধীরে আমার এই ভ্রম থেকে আমি নিজেকে মুক্ত করি। এখন আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে আমি সত্যিই যা ঘটেছিল তা অবশ্যই উল্লেখ করতে যাচ্ছি এবং অবশ্যই কোথাও না কোথাও এমন ঘটনা ঘটেছিল আর এটা আমি বানিয়ে বানিয়ে বলছি না।

ফ্যাকাসে, ক্লান্ত এবং অভিব্যক্তিহীন মুখ, বিষন্ন, লক্ষ্যহীন দৃষ্টি বেল্টের নিচে হাথ রাখা এই মানুষগুলি যেন এই যুক্তিপূর্ণ কথাগুলি শুনে সম্বিত ফিরে পায়। প্রত্যেকে ইতিমধ্যে কল্পনা করছিল তারা কোনো জাদুকরি, স্বর্গিয়ে জগতে বসবাস করে যেখানে তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফল স্বরূপ তারা সমৃদ্ধ লাভ করতে পারবে।

– ঠিক কথা! ঠিক কথা! – চারিপাশের ক্লান্তি কণ্ঠস্বর ফিসফিস করে বলে উঠল।

– এই জায়গাটি কি কাছাকাছি কোথাও আ-ছে? – কোণের দিক থেকে একটি কন্ঠস্বর ধীর গতিতে বলে উঠল।

– ভাইয়েরা! – অন্য একজন আরো একটু দৃঢ় কণ্ঠে বলতে শুরু করে। – আমাদের অবশ্যই এই পরামর্শটি অবিলম্বে অনুসরণ করতে হবে কারণ আমরা আর এইভাবে জীবনযাপন করতে পারব না। আমরা অনেক পরিশ্রম করেছি অনেক কষ্ট ভোগ করেছি কিন্তু সব বৃথা গিয়েছে। আমরা বীজ বপন করেছি যা আমরা খাদ্য় হিসাবে খেতে পারতাম, বন্যা এসে ঢাল থেকে সেই সমস্ত বীজ মাটি সমেত ধুয়ে নিয়ে গেছে, শুধু পাথর রয়ে গেছে। আমাদের কি চিরকাল এখানে থাকতে হবে, ক্ষুধার্ত, তৃষ্ণার্ত, নগ্ন, খালি পায়ে সকাল থেকে রাত অবধি পরিশ্রম করা সত্তেও? আমাদের অন্য কোথাও ঊর্বর মাটির সন্ধানে যাওয়া উচিৎ যেখানে আমাদের কঠোর পরিশ্রমের ফলে ফসল ফলবে।

– চলো যাওয়া যাক! এখুনি যাওয়া যাক কারণ এই জায়গাটা আর বসবাসের যোগ্য নয়।

ফিসফিস আওয়াজ উঠতে থাকে, এবং প্রত্যেকে হাঁটতে শুরু করে, কেউ ভাবেনা তারা কোথায় চলেছে।

– দাঁড়াও ভাইয়েরা! কোথায় যাচ্ছেন? – প্রথম বক্তা অবার বলে ওঠে। – অবশ্যই আমাদের যেতে হবে, তবে এভাবে নয়। আমরা কোথায় যাচ্ছি তা জানতে হবে। অন্যথায় আমরা নিজেদের বাঁচানোর পরিবর্তে আরও খারাপ পরিস্থিতিতে গিয়ে পরব। আমার প্রস্তাব আমাদের এমন একজন নেতা কে বেছে নেওয়া উচিত যাঁকে আমরা সবাই মেনে চলব ও যে আমাদের সবথেকে ভালো পথ দেখাবেন।

– আসুন নির্বাচন করুন! আসুন এখনই কাউকে বেছে নেওয়া যাক – চারিদিক থেকে শোনা গেল।

কিন্তু তখনই তর্ক শুরু হয়, সত্যিকারের বিশৃঙ্খলা। প্রত্যেকে কথা বলছিল, কেউ শুনছিল না, শুনতে পাচ্ছিলও না। তারা আলাদা আলদা দলে বিভক্ত হতে শুরু করে, প্রতিটি ব্যক্তি নিজেই বিড়বিড় করতে শুরু করে, আর তারপর সেই দলগুলিও ভেঙে যায়। দু’জন দু’জনে করে একে ওপরের হাত ধরে কথা বলতে শুরু করে প্রতেকেই কিছু প্রমাণ করতে চেষ্টা করে, একে অপরের হাতা ধরে টানাটানি শুরু করে, এবং অন্যকে হাত দেখিয়ে চুপ করাতে চেষ্টা করে। তারপরে তারা সকলে আবার একত্র হয়ে, কিন্তু তবুও কথা বলে চলে।

– ভাইয়েরা! – হঠাৎ করেই একটি শক্তিশালী কণ্ঠস্বর শোনা যায় যা অন্য সব কোলাহল বন্ধ করে দেয়। – এইভাবে আমরা কোনো মীমাংসায় পৌঁছাতে পারব না। প্রত্যেকে কথা বলছে এবং কেউ শুনছে না। আসুন একজন নেতা কে বেছে নেওয়া যাক! আমাদের মধ্যে থেকে কাকে বেছে নেওয়া যায়? আমাদের মধ্যে কে রাস্তাগুলি জানার মত যথেষ্ট ভ্রমণ করেছেন? আমরা সবাই একে অপরকে ভালো করে জানি, এবং তবুও আমি নিজে কে এবং আমার সন্তানদের এখানে হাজির কোনো ব্যক্তির নেতৃত্বের অধীন করতে চাই না। বরং আমাকে বলুন যে কে ওই ভ্রমণকারী যে সকাল থেকে ওই রাস্তার ধারে ছায়ায় বসে আছে?

সবাই চুপ হয়ে যায়। সকলেই অপরিচিত ব্যক্তির দিকে ঘুরে দাঁড়ায় এবং তার মাথা থেকে পা পর্যন্ত দেখতে থাকে।

মধ্যবয়সী ভ্রমণকারীর মলিন মুখ প্রায় দেখা যাচ্ছিল না লম্বা দাড়ি ও চুলের আড়ালে, আগের মতোই সেখানে চুপ করে বসে থাকেন, চিন্তায় আছন্ন মাঝে মাখে হাতের লম্বা লাঠি মাটিতে ঠুকতে থাকেন।

– গতকাল আমি ওই লোকটিকে একটি ছোট ছেলের সাথে দেখেছি। তারা দুজনে হাত ধরে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। এবং গত রাতে ছেলেটি গ্রাম ছেড়ে চলে যায় কিন্তু এই অপরিচিত লোকটি এখানেই থাকে যান।

– ভাইয়েরা, আসুন আমরা এই যুক্তিহীন তর্ক ভুলে যাই যাতে আর সময় নষ্ট না হয়। ওই ব্যক্তি যেই হোক না কেন, তিনি অনেক দূর থেকে এসেছেন তাই আমরা কেউ থাকে চিনি না এবং আমাদের নেতৃত্ব দেওয়ার সবচেয়ে কম দূরত্বের এবং সর্বোত্তম পথ নিশ্চই তাঁর জানা। আমার বিচারে তিনি একজন অত্যন্ত জ্ঞানী ব্যক্তি কারণ তিনি ওখানে চুপচাপ বসে চিন্তা করছেন। অন্য যে কেউ ইতিমধ্যে দশ বার আমাদের বিষয় নাক গলাতে আসত এবং কথোপকথন শুরু করে দিত আমারদের মধ্যে কারুর সাথে কিন্তু সে সারাক্ষণ ওইখানে চুপচাপ বসে আছেন কিছুই বলছেন না।

– অবশ্যই লোকটি চুপ করে বসে আছেন করুন তিনি কোনো ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছেন। অন্যথায় আর কিছু নয়, তিনি খুবই বুদ্ধিমান – সবাই একমত হলেন এবং একসাথে অবার অপরিচিত ব্যক্তিটি কে নিরীক্ষণ করতে শুরু করলেন। প্রত্যেকেই তাঁর মধ্যে একটি উজ্জ্বল বৈশিষ্ট্য আবিষ্কার করেছিলেন, যা তাঁর অসাধারণ বুদ্ধির প্রমাণ।

তাঁরা আর কথা বলায় বেশি সময় ব্যয় করলেন না, সুতরাং অবশেষে সকলেই একমত হলেন যে ভ্রমণকারীকে জিজ্ঞাসা করাই ভাল হবে – যাঁকে, তারা ভাবছিলেন ঈশর এই ব্যক্তিটি কে তাঁদের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছেন তাঁদের পথ দেখিয়ে অন্য কোনো ঊর্বর ভালো জায়গায় নিয়ে যাওয়ার জন্য। এই ব্যক্তিরই তাদের নেতা হওয়া উচিত এবং তারা এঁর কথা শুনবেন কোনো প্রশ্ন না করে।

তারা নিজের মধ্য থেকে দশ জন কে বেছে নেয় তাদের সিদ্ধান্ত অপরিচিত ব্যক্তির কাছে গিয়ে ব্যাখা করবার জন্য। এই প্রতিনিধিদলটি ওপর দ্বায়িত্ব ছিল অপরিচিত ব্যক্তি কে তাদের শোচনীয় পরিস্থিতিরে কথা বলা ও তাঁকে তাদের নেতা হওয়ার অনুরোধ করার।

দশজন গিয়ে নম্রভাবে মাথা নত করল। তাদের মধ্যে একজন এই অঞ্চলের অনুৎপাদনশীল মাটি সম্পর্কে, খরার সময়ের কথা এবং তাদের দুর্দশার কথা বলতে শুরু করে। তিনি তাঁর বক্তব্য নিম্নলিখিত পদ্ধতিতে শেষ করেন:

– এই পরিস্থিতি আমাদের বাধ্য করছে আমাদের বাড়িঘর এবং জমি ছেড়ে চলে যেতে আরো ভালো বাস উপযুক্ত স্থানের সন্ধানে। যে মুহুর্তে আমরা এই সিদ্ধান্ত পৌছাই, যেন ঈশ্বর আমাদের ওপর করুনাময় হয় আপনাকে আমাদের কাছে পাঠিয়ে দেন – আপনি একজন জ্ঞানী ও যোগ্য অপরিচিত – এবং আপনি আমাদের নেতৃত্ব দেবেন এবং আমাদের দুর্দশা থেকে মুক্ত করবেন। এখানকার সমস্ত বাসিন্দাদের হয় আমরা আপনাকে আমাদের নেতা হতে অনুরোধ করছি। আপনি যেখানেই যাবেন, আমরা আপনাকে অনুসরণ করব। আপনি রাস্তা চেনেন এবং অবশ্যই আপনি কোনো সুখের ও ভালো স্থানে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন। আমরা আপনার কথা শুনব এবং আপনার প্রতিটি আদেশ পালন করব। হে, বিজ্ঞ অচেনা মানুষ আপনি কি এতগুলি প্রাণকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাতে রাজি হবেন? আপনি কি আমাদের নেতা হবেন?

এই অনুনয় পূর্ণ বক্তৃতা চলাকালীন সেই জ্ঞানী অপরিচিত ব্যক্তি একবারও মাথা তোলেন না। পুরো সময় তিনি সেই একই অবস্থানে থেকেন যেভাবে তাঁরা তাঁকে প্রথমে দেখতে পেয়েছিল। তাঁর মাথা নীচু, চেহারায় ভ্রূকুটি, কোনো কথা বলেন না। কিছু সময় অন্তর হাতের লাঠি দিয়ে মাটি ঠুকতে থাকেন এবং – চিন্তা করতে থাকেন। বক্তৃতা শেষ হওয়ার পরে নিজের অবস্থান না বদলে তিনি ধীরে এবং রূঢ়হ ভাবে বিরিবির করে বলেন:

– আমি করব!

– আমরা কি তাহলে আপনার সাথে যেতে পারি এবং আরও ভাল জায়গার সন্ধান করতে পারি?

– পারেন! – তিনি মাথা না তুলে বলে যান।

সবার মুখে উৎসাহ এবং প্রশংসা ফুটে ওঠে, কিন্তু অপরিচিত ব্যক্তিটি তা দেখেও একটি শব্দ বলেন না।

দশজন সমবেত বাকি সবাই কে গিয়ে তাদের সাফল্যের কথা জানায়, এবং এও বলে তারা এখন বুঝতে পেরেছে এই ব্যক্তি বিপুল জ্ঞানের  ভান্ডারের অধিকারী।

– তিনি ঘটনাস্থল থেকে সরে যাননি করা তাঁর সাথে কথা বলছে দেখার জন্য মাথাও তোলেননি। তিনি কেবল চুপচাপ বসে ধ্যান করতে থাকেন। আমাদের সমস্ত আলোচনা এবং প্রশংসার উত্তরে তিনি কেবল চারটি কথা বলেন।

– সত্যিকারের একজন ঋষি! বিরল বুদ্ধিসম্পন্ন! – চারিদিক থেকে তাঁরা আনন্দে চিৎকার করে বলে ওঠেন স্বর্গ থেকে ঈশ্বর নিজেই একজন ফেরেশতা পাঠিয়ে দিয়েছেন তাদের বাঁচানোর জন্য। সকলেই এমন নেতার নেতৃত্বের অধীনে সাফল্যের দৃঢ় প্রত্যয়ী ছিলেন, যাকে বিশ্বের কোনও কিছুই হতাশ করতে পারে না। এবং তাই পরের দিন ভোরবেলায় যাত্রা শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

(পরের পৃষ্ঠা)

Ознаке:, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,

About Домановић

https://domanovic.wordpress.com/about/

Оставите одговор

Попуните детаље испод или притисните на иконицу да бисте се пријавили:

WordPress.com лого

Коментаришет користећи свој WordPress.com налог. Одјавите се /  Промени )

Google photo

Коментаришет користећи свој Google налог. Одјавите се /  Промени )

Слика на Твитеру

Коментаришет користећи свој Twitter налог. Одјавите се /  Промени )

Фејсбукова фотографија

Коментаришет користећи свој Facebook налог. Одјавите се /  Промени )

Повезивање са %s

%d bloggers like this: